মাগুরা থেকে নওয়াব আলীঃ
মাগুরার শালিখা উপজেলার বাউলিয়া হাটের উন্নয়ন ও দূর্ঘটনা এড়াতে শালিখা উপজেলা নির্বাহী অফিসার গোলাম মোঃ বাতেন “নিরাপদ বাউলিয়া হাট” প্রকল্প গ্রহন করেছেন। সরেজমিন তদন্তে দেখা যায় আড়পাড়া – বুনাগাতী সড়কের বাউলিয়াতে সড়কের উপর সপ্তাহে তিন দিন হাট বসে। রবিবার,মঙ্গলবার ও শুক্রবার হাট চলাকালিন সময়ে যানবাহন ও পথচারীদের চলাচলে মারাত্মক বিঘ্ন ঘটে। হাটের নিজস্ব জায়গা না থাকায় হাট কমিটি রাস্তার উপর হাট বসান। ধানের মৌসুমে চাপ পড়ে আরো বেশী।  তার উপর এটি শালিখার একমাত্র বাঁশের হাট। স্থানীয় সুত্র থেকে জানাযায়, গত ১০ বছরে এখানে সড়ক দূর্ঘটনায় অন্তত তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে শতাধিক। যাদের মধ্যে ১০/১৫ জন স্থায়ী পঙ্গুত্ব বরণ করেছেন। এ প্রকল্পে তত্বাবধায়ক ও স্থানীয় সমাজ সেবক সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ শহর আলী সরদার বলেন, বাজারের দীর্ঘদিনের এ সমস্যা নিরশনে শালিখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মোঃ বাতেন বাজারের পূর্ব-দক্ষিণ পাশের সরকারি পরিত্যাক্ত নিচু জমি উদ্ধার করে মাটি ভরাট করেছেন। পূর্ব ও পশ্চিম পাশ ভেঙ্গে পড়া রোধে পেলাসাইটিং করেছেন। এখানই গড়ে তোলা হবে চাজার চান্দিনা। এছাড়া বাজারের অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করা হয়েছে। বিশুদ্ধ পনি ও পয়োনিষ্কাশনের জন্য ওয়াস ব্লক বসিয়েছেন। এখন থেকে আর রাস্তার উপর হাট বসার প্রয়োজন হবেনা। ফলে দূর্ঘটনা অনেকাংশে কমে আসবে।
এ ব্যাপারে শালিখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মোঃ বাতেন আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন, বাউলিয়া হাটে প্রতি বছর কিছু দূর্ঘটনায় মৃত্যু ও পঙ্গু পর্যন্ত হয়ে থাকে।আমি সড়কের উপর থেকে হাট সরিয়ে “নিরাপদ বাউলিয়া হাট” করতে চাই। সরকারি সম্পত্তি উদ্ধার, পয়ঃনিস্কাশনে ওয়াস ব্লক, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, মাটি ভরাট,প্যলাসাইটিং, হেরিংবন চান্দিনা সহ আনেক কাজ হাতে নিয়েছি।ইতি মধ্যে যার আনেক কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এভাবে সারা উপজেলার উন্নয়ন কাজ অব্যহত থাকবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে