দর্পণ ডেস্ক : শীত মৌসুমে দেশে করোনাভাইরাসের আরেক দফা সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছিল। সেটাই বাস্তব করে গত কিছু দিন ধরে নতুন সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যাও বৃদ্ধি পেতে দেখা যাচ্ছে।

নভেম্বরের শুরু থেকেই দেশে শীতের আবহ তৈরি হয়েছে, বিশেষ করে গত ১০ দিনে চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।

এই ১০ দিনের মধ্যে বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) দ্বিতীয় দফায় সর্বোচ্চ ১৯৭ জন ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হন। সবচেয়ে কম ৬৩ জনের করোনা শনাক্ত হয় গত ১৪ নভেম্বর। এছাড়া গতকাল শুক্রবার (২০ নভেম্বর) চট্টগ্রামে এক হাজার ৬৭টি নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১৪৫ জন। ১৮ নভেম্বর এ সংখ্যা ছিল ১৬১, ১৭ নভেম্বর ১৭৮, ১৬ নভেম্বর ১৫৭, ১৫ নভেম্বর ১৮১, ১৩ নভেম্বর ১৮৬, ১২ নভেম্বর ১০৮ ও ১১ নভেম্বর করোনা শনাক্ত হয় ১১৩ জনের।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন শেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ‘করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ইতোমধ্যেই আমাদের সমাজে প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে। শহরাঞ্চলে মানুষ খুব বেশি সংখ্যায় আক্রান্ত হচ্ছেন। গ্রামে পরীক্ষার প্রবণতা কম থাকায় সঠিক চিত্রটা হয়তো আমরা পাচ্ছি না।’

তিনি বলেন, ‘আগেই বলা হয়েছিল শীত মৌসুমে করোনার প্রকোপ বাড়বে, নাগরিকদের নিজেদের সুরক্ষায় এখনই সচেতন হতে হবে। তবে প্রথমবারের মতো এখনো করোনায় আক্রান্ত হয়ে জটিল রোগীর সংখ্যা ততটা বেশি নয়। আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসা দেয়ার জন্য আমাদের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রয়েছে।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে