দর্পণ ডেস্ক : চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তরিকুল ইসলাম (৩০) নামের এক যুবক খুন হয়েছেন। গত বুধবার বিকেলের দিকে সদর উপজেলার সরোজগঞ্জ বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত তরিকুল সদর উপজেলার নতুন ভান্ডারদহ গ্রামের মঈন উদ্দীনের ছেলে ও পেশায় একজন আলমসাধু চালক। ঘাতক রিফাত (২৪) পুরাতন যাদবপুর এলাকার বদরউদ্দিনের ছেলে।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু জিহাদ মোহাম্মদ ফকরুল আলম খান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রিফাত ও তরিকুল সরোজগঞ্জ বাজারে পৃথক দুটি দোকানের কর্মচারী। তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে রিফাত তার হাতে থাকা বস্তার চাল বের করা টিনের তৈরি ধারালো অংশ নিয়ে তরিকুলের পেটে আঘাত করে। এতে গুরুতর জখম হন তরিকুল। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্য হয় বলে জানান হাসপাতালের চিকিৎসক মাহবুবুর রহমান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে