দর্পণ ডেস্ক : ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ক্লেয়ার কনর মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) ২৩৩ বছরের ইতিহাসে প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন । বর্তমান প্রেসিডেন্ট কুমার সাঙ্গাকারার স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি।
বুধবার নিজেদের এজিএমের পর এমসিসির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে এ তথ্য। আগামী বছর অর্থাৎ ২০২১ সালের ১ অক্টোবর থেকে শুরু হবে এমসিসি প্রধান হিসেবে কনরের যাত্রা। যা অব্যাহত থাকে ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ পর্যন্ত।
ক্রিকেটের কুলীন এবং গুরুত্বপূর্ণ এ ক্লাবের দায়িত্ব পেয়ে উচ্ছ্বসিত ৪৩ বছর বয়সী কনর। তিনি বলেন, ‘এমসিসির পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হতে পেরে আমি অনেক বেশি সম্মানিত বোধ করছি। ক্রিকেট এরই মধ্যে আমার জীবনকে সাজিয়ে-গুছিয়ে তুলেছে। আর এখন এটি আমাকে এত বড় সম্মান দিলো।’
তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের প্রায়ই পেছন ফিরে দেখতে হয় ঠিক কতদূর এলাম। মাত্র নয় বছর বয়সে মুগ্ধ চোখে লর্ডস দেখেছিলাম আমি, যখন লং রুমে নারীদের স্বাগত জানানো হতো না। এখন সময় বদলে গেছে। আমি মনে করি এটি দারুণ একটি সুযোগ। ক্রিকেটের সবচেয়ে প্রভাবশালী ক্লাবটিকে সামনে এগিয়ে নিতে সম্ভাব্য সবকিছুই করব।’
১৯৯৫ সালে মাত্র ১৯ বছর বয়সে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় কনরের। ২০০০ সালে তিনি পান ইংল্যান্ডের অধিনায়কত্ব। ২০০৫ সালে তার অধীনেই ৪২ বছরের মধ্যে প্রথমবার নারী অ্যাশেজের শিরোপা জিতেছিল ইংল্যান্ড।
একই বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানান তিনি। অবসরের আগে ১৬ টেস্ট, ৯৩ ওয়ানডে ও ২টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন কনর।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে