এ্যাড. মোঃ রেজাউল করিম মিঞা
এমবিএ, এমকম, এলএলবি

পৃথিবী মুক্তি চায়- খাই খাই নাই নাই , আগে যাব, আগে পাব, আগে খাব এটাই তো মানুষের স্বভাব
জন্মের পর থেকেই শুরু হয় চাওয়া পাওয়া, এমনকি ভাল বিদ্যাপিঠে ভর্তির ঠেলাঠেলি।
লেখাপড়া করে কাজের জন্য ছুটে চলা, আবার তাও যদি হয় চাকুরী নামের ভেলা
অযোগ্য লোকের তেলবাজি, বুঝে বা না বুঝে, ওরা খুশী করতে দেয় হাততালী
অফিস, পরিবহন, বাজার-আবারযদি হয় সংসার, ধর্মে, কর্মে, শয়নে স্বপনে শুধুই পেতে চায়
এটা চায়, ওটা চায়, শূন্য থেকে আসমানে, কেউ বাসৎ , কেউ বা অসৎ পথের আয় দিয়ে করেছে-
জমি-জমা, টাকা-পয়সা, গাড়ী-বাড়ি রাখেনি কোন অভাব,
শুধুই আর্তনাদ, এটা চাই-ওটা চাই রক্তে মিশেছে,সকল বিকৃত রুচির স্বভাব।

ডুবে আছো অন্ধকারে ওরে ও নরাধম, প্রকৃতিকে বানাতে চেয়েছো অ-সহায়,
কেউ বুঝতে চেষ্টা করনি অসহ্য-অসহায় প্রকৃতির ছিল আর্তনাদ, জ্ঞানের কি মাথা খেয়েছো চিবিয়ে
কেউ ভাবতেও পারনি, প্রকৃতিকে লজ্জা দিতে গিয়ে নিজেই লজ্জায় পড়েছো।
মা-বাবা, এতিম এমনকি আরোও কাউকে ঠকাতে গিয়ে, দেখ হিসাব করে নিজেই ঠকেছো
আবাল, বৃদ্ধ, বনিতা সকলেই আজ ঘওে বসে আছো

বুঝতে পারনি এখনও কেন রুমাল দিয়ে নওশা-নববধু হয়ে মুখটি ঢেকেছো ।
আজ আর কাজ করছেনা কোন ক্ষমতা, কামান, বন্দুকে, সব ঢুকে পড়েছে সিন্দুকে,
তবুও থামে নাই অপকর্ম নিন্দুকের, ওদের কৃতকর্ম ও শর্ত ভংগের ফলাফল, জগৎ আজ প্রায় অচল।
মুছে ফেল মনের কালি, দুর কর মনের অন্ধকার, আর নয় উল্টো রথে

এখনও সময় আছে, মেনে চল চিরসত্য ধর্মের বানী, চল সৎ, সত্য ও সরল পথেতবেই মিলবে জগতের মুক্তি, এখানে চলবেনা খোরা কোন যুক্তি।
রোগবালা, মুছিবত দিয়ে, বুঝাতে চায়, দেখ সামান্যতে তোমরা কত অসহায়,
বলছে তোমাকে হতে পরিস্কার, যেতে হবে সব ছেড়ে, দেখ ওই দুরে অসহায়ের মত
ওখানে তোমার অপকর্মের সাথীরা কেউ নেই, আছে শুধুই নিঃশব্দ, নিরবতা ঘুটঘুটে অ›ধকার।

1 মন্তব্য

Comments are closed.