নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের বড়াইগ্রামে কৃষক মোবারক হোসেনের (৪৫) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ উপজেলার ইকোরী গ্রামের গা-কামড়া বিলের চাঁদ মাহমুদের পাট ক্ষেত থেকে উদ্ধার করে তার লাশ। মোবারক হোসেন উপজেলার ইকোরী গ্রামের মৃত খয়ের উদ্দিনের পুত্র ও সোনাবাজু গ্রামের মমিন মোল্লার জামাই। জামাই-শ্বশুরের বাড়ির দূরত্ব অনুমান দুইশ গজ।

¯’ানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুরে নিজ বাড়ির পাশে সোনাবাজু গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে যায় মোবারক হোসেন। তারপর বিকেল তিনটার দিকে পটোলের জমি নিড়ানোর জন্য এবং ঘাস খাওয়ানোর জন্য দাঁড়ক দিতে বাড়ি থেকে একটি গরু নিয়ে যায় পাশের গা-কামড়া নামক বিলে। সন্ধ্যা ঘনিয়ে এলেও মোবারক হোসেন ও গরু বাড়িতে ফিরে না আসায় নিহতের শাশুড়ি ফাহিমা বেগম অপর একজনকে সাথে নিয়ে জামাই ও গরুর খোঁজে যায় বিল গা-কামড়াতে। সেখানে তারা প্রথমে দাঁড়ক অব¯’ায় গরু দেখতে পায়। পরে আশপাশে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে এক জমির পাট গাছ ভাংচুর ও এলোমেলো দেখে এগিয়ে গিয়ে দেখতে পায় কাঁচা পাট দিয়ে হাত-পা বাঁধা জামাই মোবারক হোসেনের মৃত দেহ। হাত ছিল পিঠ মোড়া দিয়ে বাঁধা আর পাট-রশি দিয়ে টাইট করে পেঁচানো ছিল দেহের অপর অংশ গলা। এতে প্রাথমিকভাবে ¯’ানীয়রা ধারণা করছেন যে তাকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করা হয়েছে।

বড়াইগ্রাম থানার ডিউটি অফিসার রেজাউল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মোবারক হোসেনের লাশ সোমবার রাতে উদ্ধার করে মঙ্গলবার নাটোর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে