দর্পণ ডেস্ক : টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠেছে পাকিস্তান। সুপার টুয়েলভে নিজেদের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে বাবর আজমের দল।
জিতলেই সেমিফাইনাল— এমন সমীকরণে অ্যাডিলেড ওভালে রবিবার টস জিতে আগে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১২৭ রান করে সাকিব আল হাসানের দল। জবাবে ১৮. ১ ওভারে ৫ উইকেটে ১২৮ রান করে পাকিস্তান। এদিকে দিনের প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের কাছে দক্ষিণ আফ্রিকা হেরে যায়। ফলে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের ম্যাচ হয়ে দাঁড়ায় অঘোষিত কোয়ার্টার ফাইনাল।১২৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে তাসকিন আহমেদের করা প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছিলেন পাকিস্তানের ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান। কিন্তু ক্যাচটি ফেলে দেন বাংলাদেশের উইকেটকিপার নুরুল হাসান সোহান। পরের বলেই ছক্কা হাঁকিয়ে রানের খাতা খোলেন রিজওয়ান। পরে বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের ওপেনিং জুটিতে আসে ৫৭ রান। পাঁচ বলের ব্যবধানে সাজঘরে ফেলেন বাবর (২৫) ও রিজওয়ান (৩২)।
মূলত সাকিবদের ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন মোহাম্মদ হারিস। ১৮ বলে ৩১ রানের ইনিংস খেলেন ডানহাতি এই ব্যাটার। শান মাসুদের ২৪ রানে ১১ বল আর ৫ উইকেট হাতে রেখে জয় নিশ্চিত হয় পাকিস্তান। এ হারে পয়েন্ট টেবিলে নেদারল্যান্ডসের নিচে থেকে বিশ্বকাপ শেষ করল বাংলাদেশ।
এর আগে ব্যাটিংয়ে নেমে দুর্দান্ত শুরু করেছিলেন দুই ওপেনার লিটন কুমার দাস ও নাজমুল হোসেন শান্ত। তবে ব্যক্তিগত ১০ রানে আউট হয়ে যান লিটন। অপর ওপেনার শান্তর সঙ্গে ৫২ রানের জুটি গড়েন সৌম্য।
১৭ বলে ২০ রান করে শাদাব খানের বলে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে আউট হন সৌম্য। ঠিক পরের বলেই আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে সাজঘরে ফিরতে হয় সাকিবকে। চলতি বিশ্বকাপে নিজের দ্বিতীয় অর্ধশতক করেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ৪৬ বলে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় অর্ধশতকটি করেন বাঁহাতি এই ব্যাটার।
এরপরই পথ হারায় বাংলাদেশ। শেষ ৯.৩ ওভারে ৫৩ রান তুলতেই হারায় ৭ উইকেট। মূলত শাহিন শাহ আফ্রিদির বোলিংয়ে বড় স্কোর গড়তে পারেনি সাকিব আল হাসানের দল। বাঁহাতি এই পেসার ২২ রান দিয়ে নেন ৪ উইকেট।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে