আব্দুল হক পংকি, লন্ডন থেকে : যুক্তরাজ্যে প্রধানমন্ত্রী সফরকালে কর্মীবান্ধব নেতা আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীসহ তার ফ্যামিলি একান্ত সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সঙ্গে। জাতির পিতার রক্তে রঞ্জিত পিচ্ছিল ও বন্ধুর পথ ধরে আওয়ামী লীগের হাল ধরেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। দলের প্রতিটি নেতাকর্মীকে মমতাময়ী মায়ের মতো আগলে রেখেছেন। দলীয় কর্মীর সুখে-দুখে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন খোঁজখবর নিয়েছেন।
তেমনি যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নববিবাহিতা পুত্রবধূ শেখ সাবরিনা ও তার পুত্র রায়হানুজ্জামান চৌধুরীরও খোঁজখবর নেন এবং তাদের জন্য দোয়া ও বিবাহিত জীবনের জন্য আশির্বাদ করেন বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা।
শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর পুরো পরিবার বঙ্গবন্ধুর কন্যাদ্বয়ের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে পুত্র ও পুত্রবধূকে দোয়া করেন তারা।
এ সময় আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর শতবর্ষী মা গহিন্নুছা চৌধুরীরও খোঁজখবর নেন এবং পুরো পরিবারের সাথে কুশল বিনিময় করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল, আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর শতবর্ষী মা গহিন্নুছা চৌধুরী, স্ত্রী হিলি চৌধুরী, আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর তিন ছেলে ও ভাতিজিসহ পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) লন্ডনেই আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর বড় ছেলের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। ওই অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ রেহানা ও উনার মেয়ে ব্রিটিশ এমপি টিউলিপ সিদ্দিকীসহ যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর আত্মীয়স্বজন, বন্ধু-বান্ধবের পাশাপাশি তার রাজনৈতিক সহকর্মীরাসহ সেই অনুষ্ঠানে বাঙালির মিলন মেলা বসেছিল।
যোগ দিয়েছিলেন ইউরোপের অন্যান্য দেশ, বিশেষ করে ফ্রান্স, জার্মানি, নেদারল্যান্ডস, বেলজিয়াম, স্কটল্যান্ডের প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তাদের মধ্যেও আত্মীয়স্বজন, বন্ধুদের পাশাপাশি ছিলেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগসহ অন্যান্য অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে