দর্পণ ডেস্ক : তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বাংলাদেশের প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর সন্তোষজনকভাবে সফল হয়েছে। ভারত সরকারও এটা ব্যক্ত করেছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপির ফখরুল সাহেবদের তো মন খারাপ কেন এত ভালো সফর হলো। সে জন্য তাদের মন খুবই খারাপ। তাদের কাজ হলো বিভ্রান্তি ছড়ানো। সেটাই নিয়ে তারা ব্যস্ত। মন খারাপের কারণে এখন তারা আবোলতাবোল বলছেন।
রবিবার (১১ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাব আয়োজিত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে বৃক্ষরোপণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব কথা বলেন।
ড. হাছান মাহমুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের অন্যতম সফলতা হচ্ছে ভারতের স্থলভাগ ব্যবহার করে অন্য তৃতীয় দেশে বিনাশুল্কে পণ্য রফতানি করা। বহুদিন ধরে আলাপ আলোচনার পরে এটি এই সফর বাস্তবায়ন হয়েছে। এতে করে চট্টগ্রাম ও মোংলা বন্দর ব্যবহার করে নেপাল, ভুটান তাদের পণ্য আমদানি-রফতানি করতে পারবে। এটি একটি বড় অর্জন। তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগের হাত ধরেই ভারতের কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি আদায় করা হয়েছে। সমুদ্রসীমা, ছিটমহল আমাদের প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরেই মীমাংসা হয়েছে।’
তিস্তা চুক্তি প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, তিস্তা চুক্তিটি না হওয়ার পেছনে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে বাধা নেই। বাধাটা সংবিধান অনুযায়ী রাজ্য সরকারের কারণে। রাজ্যের বাধা থাকায় চুক্তিটি হয়নি। আমরা আশা করছি অচিরেই তিস্তা চুক্তিটি হবে। কুশিয়ারা নদীর পানি নিয়ে যে চুক্তি হয়েছে সেটি একটি বড় অর্জন বলেও মন্তব্য করেন ড. হাছান মাহমুদ। বৃক্ষরোপণকালে আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, সাবেক সভাপতি সাইফুল আলমসহ জাতীয় প্রেসক্লাব ও ডিউইজের নেতারা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে