দর্পণ ডেস্ক : ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার না করতে রাশিয়াকে সতর্ক করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিবিএস নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বাইডেন বলেছেন, এমন পদক্ষেপের ফলে যুদ্ধের প্রকৃতি বদলে দেবে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এমন কোনও কিছু ঘটেনি। অবশ্য রাশিয়া যদি পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করে তাহলে যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টা পদক্ষেপ কী হবে তা বলেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট।
ইউক্রেনে ফেব্রুয়ারিতে রুশ বাহিনীর আক্রমণ শুরুর পর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দেশটির পারমাণবিক শক্তিকে ‘বিশেষ’ সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।
ওই সময় পুতিন দাবি করেছেন, পশ্চিমাদের আগ্রাসী বক্তব্যের কারণে এমন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।
প্রায় ৮০ বছর ধরে পারমাণবিক অস্ত্র বিরাজ করছে। অনেক দেশই এসব অস্ত্রকে জাতীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য প্রতিরোধমূলক হাতিয়ার হিসেবে মনে করে।
ফেডারেশন অব আমেরিকান সায়েন্টিস্টস-এর তথ্য অনুসারে, রাশিয়ার কাছে প্রায় ৫ হাজার ৯৭৭টি পারমাণবিক ওয়ারহেড রয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত রাশিয়া ইউক্রেনে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের ইচ্ছা প্রকাশ করেনি।
সিবিএস প্রতিনিধি স্কট পেলি হোয়াইট হাউজে বাইডেনের কাছে জানতে চেয়েছিলেন, পুতিন যদি ইউক্রেনে গণবিধ্বংসী অস্ত্র ব্যবহারের বিষয়টি বিবেচনা করেন তাহলে তিনি কী বলবেন। জবাবে বাইডেন বলেন, ‘করবেন না, করবেন না করবেন না’।
এরপর তার কাছে জানতে চাওয়া হয় পুতিন যদি এমন সীমা অতিক্রম করে ফেলেন তাহলে এর পরিণতি কী হবে।
তখন বাইডেন বলেন, আপনার কী মনে হয় আমি যা করব তা আপনাকে বলে দেব? অবশ্যই আমি আপনাকে তা বলছি না। এটি হবে পরিণতিমূলক।
বাইডেন আরও বলেন, বিশ্বে তারা এখনকার চেয়ে আরও বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। তারা যা করবে তার ভিত্তিতে পাল্টা পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সূত্র: বিবিসি।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে