দর্পণ ডেস্ক : সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা মসিউর রহমান রাঙ্গা জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রেসিডিয়াম সদস্য পদ থেকে নিজের অব্যাহতির আদেশে অখুশি নন বলে জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচা ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান। মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, ‘আমি আমার অব্যাহতির আদেশে অখুশি নই। তবে আমি আমার বহিষ্কার (অব্যাহতি) আদেশ প্রত্যাহার চাই। চেয়ারম্যানের সঙ্গে যুদ্ধ করে দলে থাকা যায় না।’
বুধবার মসিউর রহমান রাঙ্গাকে জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি দেন দলের চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের। দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদের রংপুরে কীভাবে রাজনীতি করেন তা দেখে নেওয়ার হুমকি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘গতকাল অব্যাহতির আদেশ পাওয়ার পর আমি একটু রাগান্বিত ছিলাম। এটা অস্বীকার করব না। আমি চেয়ারম্যানকে যে চ্যালেঞ্জ দিয়েছিলাম সেটা তুলে নিয়েছি। রংপুরেও আর কোনো ঝামেলা হবে না।’
তিনি বলেন, ‘আমি কোনো অন্যায় করিনি। এটা বলার জন্য সংবাদ সম্মেলনে ডেকেছি। আমি আমার বহিষ্কার আদেশে অখুশি নই। আমি চাই, দলটা যেন সুন্দরভাবে চলে, না ভেঙে যায়। দলটাকে ছোট করা ঠিক হবে না। প্রয়োজনে আমি নিজেই দলে থাকব না।’
কেন আপনাকে দল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে জানতে চাইলে মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, ‘রওশন এরশাদকে সরিয়ে জি এম কাদেরকে সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা করার বিষয়ে যে চিঠি দেওয়া হয়েছে তার প্রক্রিয়া সঠিক ছিল না। এটা আমি একটা টিভি চ্যানেলকে বলেছিলাম, এজন্য আমাকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে মনে করছি।’
চিঠি দেওয়ার প্রক্রিয়া সঠিক না থাকলে সেটা নিয়ে এতদিন পরে কেন কথা বলছেন জানতে চাইলে বিরোধী দলীয় এ চিফ হুইপ বলেন, ‘রওশন এরশাদকে সরিয়ে জি এম কাদেরকে বিরোধী দলীয় নেতা করার চিঠি দেওয়া পর তিনি (রওশন এরশাদ) আমাকে বলছেন, তুমি তো আমার সব সর্বনাশ করেছ। তুমি তো সব চিঠিতে সই করেছ।’ তখন আমি উনাকে বলেছি, ‘এটার সঙ্গে আমি নেই। প্রক্রিয়া যে সঠিক ছিল না, এটা আমি কোনো গণমাধ্যমে বলে দেব। এরপর আমি এ নিয়ে কথা বলেছি।’
প্রক্রিয়া সঠিক না থাকলে কেন চিঠিতে স্বাক্ষর করেছিলেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তখন স্বাক্ষর না করলে আমাকে বিরোধীদলীয় চিফ হুইফ থেকে সরিয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছিল। একইসঙ্গে আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন না দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছিল।’

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে