দর্পণ ডেস্ক : প্রথম আফ্রিকান ও আরব নারী হিসেবে ইউএস ওপেনের ফাইনালে ওঠেন ওনস জাবির। শিরোপা জিতে ইতিহাস গড়ার অপেক্ষায় ছিলেন তিউনিশিয়ান টেনিস তারকা। তবে জাবিরকে রেকর্ডবঞ্চিত করে ইতিহাস রচনা করেছেন ইগা সোয়েটেক। প্রথম পোলিশ নারী হিসেবে ইউএস ওপেন জিতলেন তিনি।
শনিবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে জাবিরকে ৬-২, ৭-৬ (৭-৫) গেমে হারান সোয়েটেক। ম্যাচের ৮ মিনিটের মধ্যে ৩-০ গেমে এগিয়ে যান তিনি। শুরুর ধাক্কা সামলে পরের দুই গেম জিতে ব্যবধান ৩-২ করেন জাবির। দাপুটে প্রত্যাবর্তনে ৬-২ গেমে প্রথম সেট শেষ করেন সোয়েটেক। দ্বিতীয় সেটেও শুরুতে ৩-০ গেমে এগিয়ে যান সোয়েটেক। ফের টানা দুই গেম জিতে ব্যবধান ৩-২ করেন জাবির। জাবিরের সার্ভ ব্রেক করে ব্যবধান ৪-২ করেন শিয়নটেক। এরপর দাপট দেখিয়ে স্কোরলাইন ৪-৪ করে ফেলেন জাবির। তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দ্বিতীয় সেটে একটা সময় স্কোরলাইন ৬-৬ হয়। শেষ পর্যন্ত টাইব্রেকারে হার মানতে হয় জাবিরকে।
চলতি বছরে দ্বিতীয় গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা উঁচিয়ে ধরলেন সোয়েটেক। এর আগে জিতেছেন ফ্রেঞ্চ ওপেন। ফ্রান্সেই ২০২০ সালে ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা জিতেছিলেন সোয়েটেক। সব মিলিয়ে এ নিয়ে টানা দশম ফাইনাল জিতলেন সোয়েটেক। তিন বছর আগে ক্যারিয়ারের প্রথম ডব্লুটিএ ফাইনালে হারের স্বাদ পান তিনি। এরপর আর কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে হারেননি পোলিশ তারকা।
শিরোপা জিতে সোয়েটেক বলেন, ‘নিশ্চিত ছিলাম না যে আমি গ্র্যান্ড স্লাম জেতার মতো পারফর্ম করছি কি না। বিশেষ করে ইউএস ওপেনে, যেখানে কোর্ট খুবই দ্রুত গতির।’ অবিশ্বাস্য জয়ে আনন্দিত শিয়নটেক, ‘এটা সত্য যে আমি এমন কিছু প্রত্যাশা করিনি। আমি গর্বিত, আবার কিছুটা বিস্মিতও। এমন কিছু করতে পেরে আমি আনন্দিত।’
প্রথম আরব খেলোয়াড় ও আফ্রিকান নারী হিসেবে এর আগে উইম্বলডনেও ফাইনালে লড়েছেন ওনস জাবির। তবে রাশিয়ার এলিনা রিবাকিনার কাছে হেরে ইতিহাস গড়া হয়নি জাবিরের। এবারও ইউএস ওপেনে ইতিহাসের অংশ হতে পারলেন না তিনি। তবুও আত্মবিশ্বাসী জাবির। অন্য কোনো গ্র্যান্ড স্লামের লড়াইয়ে শিরোপা জয়ের প্রত্যয় ব্যক্ত করে তিনি বলেন, ‘আমার দুঃখ করার কিছু নেই। কারণ আমি সম্ভাব্য সেরা চেষ্টাই করেছি। আমি আশা ছেড়ে দেয়ার মানুষ নই। আমি জানি, আবার ফাইনাল খেলব এবং আমার সর্বোচ্চ চেষ্টাই করব।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে