দর্পণ ডেস্ক : বিগত আগস্ট মাসে দেশে মোট রেমিট্যান্স এসেছে ২০৩ কোটি ৭৮ লাখ মার্কিন ডলার। যা ২০২১-২২ অর্থবছরের আগস্ট মাস থেকে ২২ কোটি ৭৭ লাখ মার্কিন ডলার বেশি। গত অর্থবছরের আগস্টে দেশে মোট রেমিট্যান্স এসেছিল ১৮১ কোটি ১ লাখ ডলার।
বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। এতে উল্লেখ করা হয়েছে, চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে দেশে মোট রেমিট্যান্স এসেছিল ২০৯ কো‌টি ৬৯ লাখ মার্কিন ডলার। যা গত ১৪ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। যদিও এক মাসের ব্যবধানে আগস্টে ৫.৯১ কোটি ডলার কম রেমিট্যান্স এসেছে। তবে, তা আগের দুই বছরের একই সময়ের তুলনায় বেশি। ২০২১ সালের জুলাই মাসে রেমিট্যান্স এসেছিল ১৮৭ কোটি ১৪ লাখ মার্কিন ডলার এবং আগস্টে রেমিট্যান্স এসেছিল ১৮১ কোটি ডলার। ২০২০ সালে জুলাইয়ে ২৫৯ কোটি ডলার রেমিট্যান্স আসলেও আগস্টে এসেছিল ১৯৬ কোটি মার্কিন ডলার। তাতে ২০২০ এবং ২০২১ সালের আগস্টের তুলনায় এবার বেশি রেমিট্যান্স এসেছে।
বিদায়ী ২০২১-২২ অর্থবছরে মোট রেমিট্যান্স এসেছে ২ হাজার ১০৩ কোটি ১৭ লাখ মার্কিন ডলার। ওই অর্থবছরের প্রথম মাস থেকে আগের তুলনায় রেমিট্যান্স প্রবাহ ছিল ধীরগতির। অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে এসেছিল ১৮৭ কোটি ১৪ লাখ ডলার, আগস্টে ১৮১ কোটি ১ লাখ ডলার, সেপ্টেম্বর মাসে ১৭২ কোটি ৬৭ লাখ ডলার, অক্টোবরে ১৬৪ কোটি ৬৮ লাখ ডলার, নভেম্বর ১৫৫ কোটি ৩৭ লাখ ডলার, ডিসেম্বরে ১৬৩ কোটি ৬ লাখ ডলার, জানুয়ারিতে ১৭০ কোটি ৪৫ লাখ ডলার, ফেব্রুয়ারিতে ১৪৯ কোটি ৪৪ লাখ ডলার, মার্চে ১৮৫ কোটি ৯৭ লাখ ডলার, এপ্রিলে ২০১ কোটি ৮ লাখ ডলার, মে মাসে ১৮৮ কোটি ৫৩ লাখ ডলার এবং গত জুন মাসে রেমিট্যান্স এসেছিল ১৮৪ কোটি মার্কিন ডলার। এর আগে ২০২০-২১ অর্থবছরে রেমিট্যান্স আহরণের পরিমাণ ছিল ২ হাজার ৪৭৭ কোটি ৭৭ লাখ মার্কিন ডলার।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, চলতি অর্থবছরে রেমিট্যান্সের এই প্রবাহ অব্যাহত থাকলে ডলারের সরবরাহ বাড়বে। সংকট অনেকটা কেটে যাবে। তাতে ডলারের বাজার স্থিতিশীল থাকবে বলে মনে করেন তারা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে